Top
Begin typing your search above and press return to search.

বিশ্বকাপ ২০১৮: গ্ৰুপ বিশ্লেষণ,গ্ৰুপ-E

বিশ্বকাপ ২০১৮: গ্ৰুপ বিশ্লেষণ,গ্ৰুপ-E

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  15 Jun 2018 10:49 AM GMT

ব্ৰাজিল

১৯৫৮,১৯৬২,১৯৭০,১৯৯৪ ও ২০০২-এ বিশ্বকাপ জিতেছে।

ব্ৰাজিল সাউথ আমেরিকান কোয়ালিফাইংয়ে ষষ্ঠস্থান পায়। পূর্বতন কোচ দুঙ্গাকে সরিয়ে তার জায়গায় আনে তিতেকে। এরপরই আশ্চর্যজনক পরিবর্তন ঘটে দলে। দশটি ম্যাচে ১০ পয়েন্ট পায় দল। বিদ্যুৎ গতিতে প্ৰতিপক্ষের রক্ষণভাগ তছনছ করার ক্ষমতা রয়েছে এই দলের। মার্চে জার্মানির বিরুদ্ধে বন্ধুত্বপূর্ণ ম্যাচে জয় হাসিল করে দল। এটা এমনই একটা দল যারা ইউরোপীয় কায়দায় অভিজাত ফুটবল দর্শকদের উপহার দিতে পারে। দলে নেইমারের মতো তারকা খেলোয়াড় রয়েছেন।

সুইজারল্যান্ড

সেরা বিশ্বকাপ কোয়ার্টার ফাইনাল খেলেছে ১৯৩৪,১৯৩৮ ও ১৯৫৪ সালে।

নর্দান আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে ম্যাচে পেনাল্টিতে জয় তুলে যোগ্যতা অর্জন করে বিশ্বকাপে খেলার। দলের তারকা ফুটবলার রিকার্ডো রডরিগিউজ। দল ১৬ রাউন্ড পর্যন্ত পৌঁছতে পারে। এর বেশি এগোতে হলে তাদের চমক দেখাতে হবে।

কোস্টারিকা

২০১৪তে কোয়ার্টার ফাইনাল পর্যন্ত সেরা খেলেছে।

আমেরিকাকে ঘরের মাটিতে ও বাইরে হারিয়ে দল রাশিয়ায় যাওয়ার পথ প্ৰশস্ত করে। যথেষ্ট পেশাদার ও আস্থাশীল এই দল। দলের ডজন খানেক খেলোয়াড়কে বাইরের ক্লাবগুলি নিয়োগ করেছে। দলের তারকা খেলোয়াড় কেলর নাভাস,যিনি রিয়েল মাদ্ৰিদের গোলরক্ষক। বলতে গেলে বিশ্বশ্ৰেণির খেলোয়াড় নাভাস। দলের পক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছনো সম্ভব হবে না।

সার্বিয়া

যুগোস্লাভিয়া ১৯৩০,১৯৬২ তে বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল পর্যন্ত খেলেছে। সার্বিয়া হিসেবে ২০১০ এ দল গ্ৰুপ পর্যায়ে পৌঁছেছিল।

ওয়েলস,অস্ট্ৰিয়া ও আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে জয়ের দৌলতে বিশ্বকাপে খেলার পথ করে নেয় দল। দলে চৌকস ডিফেন্ডার ও অভিজ্ঞ মিড ফিল্ডার রয়েছে। তবে আক্ৰমণভাগ দুর্বল হওয়ায় সমস্যায় পড়তে পারে তারা। আলেকসান্ডার মিটরোভিক ও আলেকসান্ডার প্ৰিজোভিকের ওপর নির্ভরতা বেশি। তারকা খেলোয়াড়দের তালিকায় আছেন নেমানজা ম্যাটিক,আলেকসান্ডার কলারভ ও ব্ৰেইনস্লেভ ইভানোভিক। এঁরা দলের মেরুদণ্ড। সারগেজ মিলিনকোভিক-স্যাভিক কিছুটা অবদান রাখতে পারেন। এই দলের নকআউট রাউন্ড পেরেনোর সম্ভাবনা রয়েছে।

Next Story